Place for Advertisement

Please Contact: spbjouralbd@gmail.com

রোমান হরফে সাঁওতালি ভাষায় পাঠ্যপুস্তক প্রণয়নের দাবি

দিনাজপুর অফিস | তারিখ: ২৩-১২-২০১২
মাহলী, মুন্ডা ও সাঁওতাল—এই তিনটি আদিবাসী জাতিগোষ্ঠীর শিশুদের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মাতৃভাষায় পাঠদানের জন্য রোমান হরফে সাঁওতালি ভাষায় পাঠ্যপুস্তক প্রণয়নের দাবি জানানো হয়েছে।
গতকাল শনিবার দুপুরে দিনাজপুর প্রেসক্লাবে ‘সাঁওতালি ভাষায় বর্ণমালা ব্যবহার’ শীর্ষক দিনব্যাপী কর্মশালা শেষে সংবাদ সমেঞ্চলনে এ দাবি জানানো হয়। ‘বাংলাদেশোম সান্তাল বাইসি’ নামে একটি আদিবাসী সংগঠন কর্মশালা ও সংবাদ সমেঞ্চলনের আয়োজন করে। এতে লিখিত বক্তব্য পড়েন সংগঠনের সভাপতি এস সি আলবার্ট সরেন।
লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, বাংলাদেশে উল্লিখিত তিনটি জাতিগোষ্ঠীর জনসংখ্যা প্রায় তিন লাখ। ১৮৬৩ সালে জে আর লেপসাস প্রথম রোমান সাঁওতালি হরফ তৈরি করেন। তখন থেকে এই অঞ্চলের সাঁওতালরা রোমান হরফে প্রণীত বর্ণমালায় সাঁওতালি ভাষা ও সাহিত্য চর্চা করে আসছেন। ১৯২৫ সালের আগে থেকে সাঁওতাল অধ্যুষিত অঞ্চলে মিশনারী কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত বিদ্যালয়গুলোতে জাতীয় পাঠ্যক্রমের সঙ্গে মিল রেখে প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণী পর্যন্ত সাঁওতালি ভাষায় পাঠদান চালু আছে।
বাংলাদিশোম সান্তাল বাইসির সহসভাপতি সালভাতর পাউরিয়া, যোগেন হাঁসদা, সাধারণ সম্পাদক পিটার এস টুডু, সদস্য সুশীলা বি টুডুসহ সংগঠনের অর্ধশতাধিক সদস্য, শিক্ষক-শিক্ষিকা সংবাদ সমেঞ্চলনে উপস্থিত ছিলেন। 
 
 
 
 Source: http://www.prothom-alo.com/print/news/315477
**********************************************************************************
Share on Google Plus

About Tudu Marandy and all

0 comments:

Post a Comment