Place for Advertisement

Please Contact: spbjouralbd@gmail.com

১৩ বছরেও আলফ্রেড সরেন হত্যার বিচার হয়নি

নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার ভীমপুরে আদিবাসী নেতা আলফ্রেড সরেন হত্যার বিচার ১৩ বছরেও হয়নি। হত্যা মামলার আসামিরা জামিনে মুক্তি পেয়ে আদিবাসীদের উচ্ছেদ ও প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
বিচারের ব্যাপারে আলফ্রেড হত্যা মামলায় রাষ্ট্রের নিযুক্ত কৌঁসুলি মহসীন রেজা জানান, আলফ্রেড সরেন হত্যাকাণ্ডের পর দণ্ডবিধির ৩০২ ধারা ও জননিরাপত্তা আইনে দুটি মামলা হয়েছিল। চারদলীয় জোট সরকার ক্ষমতায় আসার পর জননিরাপত্তা আইন বাতিল করলে আসামিরা হাইকোর্টে মামলাগুলো খারিজের আবেদন করেন। হাইকোর্ট জননিরাপত্তা আইনে করা মামলাগুলো খারিজ করে দেন। ওই খারিজের বিরুদ্ধে বাদীপক্ষ আপিল বিভাগে সিভিল পিটিশন দাখিল করে। খারিজের আবেদন বাতিল করে আপিল বিভাগ মামলাটি আবার হাইকোর্ট বিভাগে পাঠান। বর্তমানে মামলাটি হাইকোর্টে শুনানির অপেক্ষায় রয়েছে।
প্রকাশ্যে হত্যা, বাদীকে হুমকি: আলফ্রেড সরেন হত্যা মামলার বাদী ও তাঁর বোন রেবেকা সরেন বলেন, ‘২০০০ সালের ১৮ আগস্ট ভীমপুর আদিবাসীপল্লিতে প্রকাশ্য দিবালোকে বলিহার ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান হাতেম আলী ও শীতেষ ভট্টাচার্য গদাইয়ের ভাড়াটে লাঠিয়াল বাহিনী আমার সামনে ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করেছে। ১৩ বছরে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, তত্ত্বাবধায়ক, আবার আওয়ামী লীগ সরকার দেখলাম; কারও কাছে বিচার পেলাম না।’
রেবেকা অভিযোগ করে বলেন, ‘প্রতিদিন আমাদের হত্যার হুমকি দেওয়া হচ্ছে। হাতেম-গদাইয়ের লোকজন বলছে, “আলফ্রেডকে মেরেছি কিছু হয়নি, মামলা তুলে না নিলে তোকেও মেরে ফেলব।”’
অভিযোগ অস্বীকার: নওগাঁ সদর উপজেলার বলিহার ইউপির চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সমর্থক হাতেম আলী প্রথম আলোর কাছে দাবি করেন, ‘রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে আমাকে এ মামলার আসামি করা হয়েছে।’
শীতেষ ভট্টাচার্য বলেন, ‘জমি দখল নিয়ে এলাকার অনেকের সঙ্গে আলফ্রেড সরেনের শত্রুতা ছিল। এলাকাবাসী ঐক্যবদ্ধভাবে তাঁকে মেরেছে। আমার বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ মিথ্যা।’
গণপদযাত্রা আজ
আমাদের নিজস্ব প্রতিবেদক, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জানান, জাতীয় আদিবাসী পরিষদের সভাপতি রবীন্দ্রনাথ সরেন জানান, আলফ্রেড সরেন হত্যাকাণ্ডের বিচার ও সমতলের আদিবাসীদের আলাদা ভূমি কমিশন গঠনের দাবিতে আজ রোববার ভীমপুরের সমাধিস্থল থেকে নওগাঁ জেলা প্রশাসকের কার্যালয় পর্যন্ত ১৫ কিলোমিটার গণপদযাত্রা কর্মসূচি পালন করবে জাতীয় আদিবাসী পরিষদ। এ ছাড়াও আলফ্রেড সরেনের সমাধিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন, প্রতিবাদ সমাবেশ ও জেলা প্রশাসককে স্মারকলিপি দেওয়া হবে।

Share on Google Plus

About Tudu Marandy and all

0 comments:

Post a Comment