Online Santal Resource Page: the Santals identity, clans, living places, culture,rituals, customs, using of herbal medicine, education, traditions ...etc and present status.

The Santal Resource Page: these are all online published sources

Santal Gãota reaḱ onolko ńam lạgit́ SRP khon thoṛ̣a gõṛ̃o ńamoḱa mente ińaḱ pạtiạu ar kạṭić kurumuṭu...

Thursday, April 3, 2014

আদিবাসীদের জমি দখলের ঘটনা বেড়েছে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
 ২০১২ সালের তুলনায় ১৩ সালে আদিবাসীদের জমি দখলের ঘটনা বেড়েছে। পার্বত্য চট্রগ্রামে প্রায় ৩ হাজার ৭৯২ একর ভূমি দখলের প্রক্রিয়া চলছে। এছাড়া সমতল অঞ্চলে ১০৩ বিঘা জমি দখল করেছে ভূমিদস্যুরা। মঙ্গলবার সকালে সিরডাপ মিলনায়তনে কাপেং ফাউন্ডেশনের আয়োজনে ‘বাংলাদেশের আদিবাসীদের মানবাধিকার রিপোর্ট ১৩’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে বইয়ের সারাংশে এসব তথ্য উপস্থাপন করা হয়। অনুষ্ঠানে বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, দিনের পর দিন বেড়েই চলেছে আদিবাসীদের ওপর নির্যাতন, হত্যা, আর জমিদখল। অনুষ্ঠানে ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা মঙ্গল কুমার চাকমার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. জিল্লুর রহমান সিদ্দিকী। ফাউন্ডেশনের কোঅর্ডিনেটর বাবলু চাকমা প্রতিবেদনটি তুলে ধরেন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. জিল্লুর রহমান সিদ্দিকী বলেন, যে প্রতিবেদন প্রকাশ করা হলো সেটা সবার হাতে যাক। প্রধানমন্ত্রী, প্রধান রাজনৈতিক দলসমূহ সবার কাছে যাক। এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে যে তথ্য পাওয়া গেলো, সেগুলো ভালোভাবে যাচাই করে পদক্ষেপ নিতে হবে। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, ২০১৩ সালে ৪ জন নারীসহ কমপক্ষে ১১জন আদিবাসীকে হত্যা করা হয়েছে। মিথ্যা মামলায় ৪২ জন আদিবাসীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ৩৪৬জন আদিবাসী পরিবারের ঘরবাড়ি ধ্বংস ও লুটপাট করা হয়েছে। ৪৭টি বাড়ি অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে। আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে ৪শ’ পরিবারের ২ হাজার লোক ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী “নো ম্যানস ল্যান্ডে” আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মেজবাহ কামাল বলেন, সরকার যদি এই প্রতিবেদনগুলো বিবেচনা করে তাহলে অনেকটাই সুরাহা হবে। আদিবাসীদের পক্ষে যেমন কাজ করতে হবে, তেমনি সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে হবে। বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সঞ্জীব দ্রং বলেন, গত বছর আদিবাসীদের অবস্থা ভালো ছিল না। দিনদিন আদিবাসীদের ওপর নির্যাতন বেড়েই চলছে। রাষ্ট্র সে অনুযায়ী পদক্ষেপ নিচ্ছে না। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন অক্সফামের প্রোগ্রাম ম্যানেজার এম বি আকতার, ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের প্রোগ্রাম ম্যানেজার ফাব্রিজিও সেন্সী প্রমুখ।
 বাংলাদেশ সময়: ১৪২৪ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৪ 
 উৎস: http://www.banglanews24.com/new/%E0%A6%9C%E0%A6%BE%E0%A6%A4%E0%A7%80%E0%A7%9F/270384-%E0%A6%86%E0%A6%A6%E0%A6%BF%E0%A6%AC%E0%A6%BE%E0%A6%B8%E0%A7%80%E0%A6%A6%E0%A7%87%E0%A6%B0-%E0%A6%9C%E0%A6%AE%E0%A6%BF-%E0%A6%A6%E0%A6%96%E0%A6%B2%E0%A7%87%E0%A6%B0-%E0%A6%98%E0%A6%9F%E0%A6%A8%E0%A6%BE-%E0%A6%AC%E0%A7%87%E0%A7%9C%E0%A7%87%E0%A6%9B%E0%A7%87.html
Share:

0 comments:

Post a Comment

Copyright © The Santal Resources Page | Powered by Blogger Theme by Ronangelo